শিরোনাম
জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় ক্যানসার আক্রান্তের পর প্রথমবার জনসম্মুখে ব্রিটিশ রাজবধূ ক্যাথরিন সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের গোলাগুলি, প্রয়োজনে জবাব দেয়া হবে : কাদের পদ্মা সেতুতে ৫ কোটি টাকা টোল আদায় সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ঈদের দিন কেমন থাকবে আবহাওয়া আরাফার দিনের বিশেষ মর্যাদা ও আমল ২০২৩-২৪ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট পাস দিল্লিতে শেখ হাসিনার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর সাক্ষাৎ বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিস শুরু বৃহস্পতিবার সৌদি পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ হজযাত্রী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সব দলকে আমন্ত্রণ জানাবে আওয়ামী লীগ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ৩ অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন ট্রেনের ৩০০ যাত্রী বেনাপোলে দুর্বৃত্তের কোপে গুরুতর আহত রাজস্ব কর্মকর্তা
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৯:০১ অপরাহ্ন

জাতীয় পতাকার নকশা বিকৃতি : শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

দর্পন রিপোর্ট / ২৩৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০

মহান বিজয় দিবসে জাতীয় পতাকার নকশা বিকৃতি করে অবমাননা করায় রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ৮ শিক্ষকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলাম আরিফ।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মেট্রোপলিটন তাজহাট থানায় এ অভিযোগ করা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্মৃতি ফলকের সামনে জাতীয় পতাকার সবুজের মধ্যে লাল অংশ গোলাকার না করে বিকৃতি করে আয়তকার করে প্রদর্শন করা হয়েছে। এছাড়া পতাকাটি নিম্নমুখী করে পায়ের নিচে ফেলা হয়।

যাদের অভিযুক্ত করা হয়েছে তারা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তবিউর রহমান প্রধান, বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক পরিমল চন্দ্র বর্মণ, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের প্রভাষক শামীম হোসেন, ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের প্রভাষক সোহাগ আলী, মার্কেটিং বিভাগের সহকারী প্রক্টর ও সহকারী অধ্যাপক মাহামুদুল হাসান, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের রামপ্রসাদ বর্মণ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক বাসক রহমতুল্লাহ, একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কাইয়ুম, পিএস আমিনুর রহমান। এছাড়া আরও ৮-৯ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

মামলায় বলা হয়- ৪নং আসামি বিষয়টি ফেসবুকে পোস্ট দিলে পরদিন ১৭ ডিসেম্বর সবার দৃষ্টিগোচর হয়। এছাড়া আসামিরা স্বেচ্ছায় জাতীয় পতাকার বিধি মামলার ব্যত্যয় ঘটিয়েছেন। এছাড়া ১নং আসামি তার ফেসবুকে স্বীকারোক্তিমূলক পোস্ট দিয়েছেন বলে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে ছাত্রলীগ ও মহানগর যুবলীগ এ ঘটনার প্রতিবাদে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করে।

এদিকে অভিযোগ উঠেছে মহান বিজয় দিবস দায়সারাভাবে পালন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। দিবসটি উপলক্ষে ক্যাম্পাসে আলোকসজ্জা করা হয়নি।  এমন দিনেও ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ।

এর আগে গত ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসেও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধা জানায়নি প্রশাসন। সেদিনও ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত ছিলেন উপাচার্য। এসব কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ জানায় বিশ্ববিদ্যালয় অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।

তাজহাট মেট্রোপলিটন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রবিউল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ