শিরোনাম
জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় ক্যানসার আক্রান্তের পর প্রথমবার জনসম্মুখে ব্রিটিশ রাজবধূ ক্যাথরিন সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের গোলাগুলি, প্রয়োজনে জবাব দেয়া হবে : কাদের পদ্মা সেতুতে ৫ কোটি টাকা টোল আদায় সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ঈদের দিন কেমন থাকবে আবহাওয়া আরাফার দিনের বিশেষ মর্যাদা ও আমল ২০২৩-২৪ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট পাস দিল্লিতে শেখ হাসিনার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর সাক্ষাৎ বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিস শুরু বৃহস্পতিবার সৌদি পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ হজযাত্রী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সব দলকে আমন্ত্রণ জানাবে আওয়ামী লীগ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ৩ অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন ট্রেনের ৩০০ যাত্রী বেনাপোলে দুর্বৃত্তের কোপে গুরুতর আহত রাজস্ব কর্মকর্তা
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন

মাস্ক ব্যবহারে বাড়ছে দাঁত ও মাড়ির সমস্যা

লাইফস্টাইল ডেস্ক / ৩০৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২০

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা ও ঘনঘন হাত ধোঁয়ার কথা বলে আসছে বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু এই মাস্কের কারণে দেখা দিচ্ছে দাঁত ও মাড়ির সমস্যা। এমনটাই বলছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের ডেন্টাল হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

ডেইলি মেইল’র বরাত দিয়ে তারা জানিয়েছে, গবেষণা চালিয়ে চিকিৎসকরা দেখেছেন দীর্ঘক্ষণ মাস্ক পরার কারণে মাড়ি ফুলে যাওয়া, মাড়ি থেকে রক্তক্ষরণ হচ্ছে।

ফক্স নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে চিকিৎসক রব রেমন্ডি জানান, যেসব রোগীরা দাঁতের বা মাড়ির সমস্যা নিয়ে আসছেন, তাদের এই ধরনের সমস্যা আগে কখনো ছিল না।

প্রায় ৫০ শতাংশ রোগীর এই সমস্যা দেখা দিয়েছে সম্প্রতি, যারা মাস্ক পরছেন।

কেন এ ধরনের সমস্যা হচ্ছে?

এই বিষয়ে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মাস্ক পরে থাকলে মানুষ মুখ দিয়ে জোরে শ্বাস নিচ্ছেন। আর মুখ দিয়ে শ্বাস নেওয়ার কারণে মুখ শুকিয়ে যাচ্ছে। মুখ শুকিয়ে যাওয়ার জন্য স্যালাইভা বা থুথু মুখে থাকছে না। এই স্যালাইভা বহিরাগত ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে ও দাঁতকে সুরক্ষিত রাখে। স্যালাইভা না থাকার কারণে ক্রমশই দাঁতের ক্ষতি হচ্ছে। একই কারণে বাড়ছে মাড়ির সমস্যাও।

সমাধানের পথ হিসেবে তারা প্রচুর পানি পান এবং মাস্ক পরে নাক দিয়ে শ্বাস নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ