শিরোনাম
দেশে ৩০ শতাংশ প্রসব ঘটে অদক্ষ দাইয়ের হাতে রাইসির মৃত্যু: বাংলাদেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা ভারতে নিখোঁজ এমপি আনারের বিষয়ে যা জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র মিশনে রাতে মাঠে নামছে বাংলাদেশ ইরানের পরবর্তী সর্বোচ্চ নেতা হওয়ার দৌড়ে ছিলেন রাইসি ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি’র মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক বিশ্ব মেডিটেশন দিবস আজ কক্সবাজারে আরসার ৪ সদস্য গ্রেপ্তার ‘মেট্রোরেলে ভ্যাট পুনর্বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’: কাদের দুই লক্ষ আনসার-ভিডিপি সদস্য মোতায়েন মধ্যরাত থেকে মাছ আহরণ বন্ধ ৬৫ দিনের জন্য চলতি মাসের ১৭ দিনে দেশে এলো ১৩৬ কোটি ডলার স্বর্ণের ভ‌রি ১ লাখ ১৯ হাজার টাকা ছাড়াল পায়রা বন্দরের সাথে সড়ক ও রেলের সংযোগ বাড়ানোর সুপারিশ পাকিস্তানে গাড়ি খাদে পড়ে নিহত ১৪
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১১:০৩ অপরাহ্ন

আম খাওয়ার পর যেসব খাবার খাবেন না

হেলথ ডেস্ক / ২২১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন, ২০২১

বাজারে এখন নানা আমের সমাহার। এই ফল নানা পুষ্টিগুণে ভরপুর। আমে প্রচুর পরিমাণে ক্যারোটিন, ভিটামিন বি, ভিটামিন সি, আয়রন, ক্যালসিয়াম ও খনিজ লবণসহ শরীরের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান থাকে। তবে আম খাওয়ার পরে কিছু খাবার খেলে স্বাস্থ্যঝুঁকি দেখা দেয়।

যেমন-

পানি : কথায় আছে, ফল খাওয়ার পর পানি খাওয়া ঠিক নয়। আমের ক্ষেত্রেও এটি শতভাগ সত্যি। আম খাওয়ার পর পানি খেলে অ্যাসিডিটির সমস্যা দেখা দিতে পারে। হতে পারে পেট ব্যথাও। তাই আম খাওয়ার অন্তত আধঘণ্টা পর পানি পান করা উচিত। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ফলের মধ্যে প্রচুর হাইড্রেটিং শক্তি রয়েছে যা তৃষ্ণা মেটানোর জন্য যথেষ্ট। তবে যদি ফল খাওয়ার পরেও কেউ যদি তৃষ্ণার্ত বোধ করেন তবে কমপক্ষে ৩০ মিনিট পর পানি পান করা উচিত। বেশিরভাগ চিকিৎসক এবং ডায়েটিশিয়ানরা ফল ও পানি পানের মধ্যে কমপক্ষে ৪০-৫০ মিনিট ব্যবধানের পরামর্শ দেন।

দই : আমের সঙ্গে ভুলেও দই মিশিয়ে খাওয়া ঠিক নয় কারণ দই আর আম এক সঙ্গে শরীরে বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। এতে চামড়ায় অ্যালার্জি হতে পারে। এছাড়াও হজমে সমস্যা, একমনকী পাকস্থলীতে বিষক্রিয়াও দেখা দিতে পারে।

করলা : আম খাওয়ার পর কখনই করলা খাওয়া ঠিক নয়। এতে বমিভাব হতে পারে। অনেকের বমিও হতে পারে।

ঝাল ও মসলাযুক্ত খাবার : আম খাওয়ার সাথে সাথে ঝাল কিংবা মসলাযুক্ত খাবার খেলে হজমে সসম্যা দেখে দিতে পারে। হতে পারে অ্যালার্জির সমস্যাও।

কোমল পানীয় : আম খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কোমল পানীয় খেলে শরীরে ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে পারে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। আম আর কোমল পানীয়তে প্রচুর পরিমাণে চিনি থাকায় রক্তে ব্লাড সুগারের পরিমাণ বাড়ার আশঙ্কা থাকে। এর ফলে ডায়াবেটিস রোগীদের বিপদ হতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ