রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন

ব্যাচেলর ও আয়নাবাজি’র প্রযোজকদের ‘রিক্সা গার্ল’

বিনোদন ডেস্ক / ২০৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৬ জুন, ২০২১

গত দুই দশকের দুই জনপ্রিয় সিনেমা ‘ব্যাচেলর’ ও ‘আয়নাবাজি’। বাংলা সিনেমার ইতিহাসে দুটি সিনেমা-ই নানা কারণে গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষত, ব্যাচেলরের গল্প সময়ের স্মারক। তারকাবহুল সিনেমাটির গানগুলোও কালজয়ী। অন্যদিকে ভিন্ন ধরনের গল্প বলে ‘আয়নাবাজি’ চমকে দিয়েছিলো বাঙালি দর্শকদের। দুটি ছবিই তুমুল দর্শকপ্রিয়তার পাশাপাশি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারেও রাখে বিরাট ভূমিকা।

শুন্য দশকের মাঝামাঝিতে (২০০৪) মুক্তি পেয়েছিলো মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ব্যাচেলর, এটি ছিলো এই নির্মাতার প্রথম সিনেমা। যার প্রযোজক ছিলেন ফরিদুর রেজা সাগর। এর পরের দশকের মাঝামাঝিতে (২০১৬) মুক্তি পায় অমিতাভ রেজা পরিচালিত আয়নাবাজি, এটিও ছিলো এই নির্মাতার প্রথম সিনেমা। যার প্রযোজক ছিলেন জিয়াউদ্দিন আদিল ও গাউসুল আলম শাওন।

এবার ‘ব্যাচেলর’ এর প্রযোজক ফরিদুর রেজা সাগর ও ‘আয়নাবাজি’র প্রযোজক জিয়াউদ্দিন আদিল এর যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে অমিতাভ রেজার দ্বিতীয় পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘রিক্সা গার্ল’। যদিও এই সিনেমায় তৃতীয় প্রযোজক হিসেবে আছেন আমেরিকান প্রযোজক এরিক জে এডামস।

মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর প্রথম ছবি ‘ব্যাচেলর’

ইতোমধ্যে ‘রিক্সা গার্ল’ এর ট্রেলার প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই সিনেমাটি আলোচনায়। প্রশংসিত হয়েছে ট্রেলার। সোয়া দুই মিনিটের ট্রেলারটিতে পাওয়া গেছে দারুণ এক গল্পের আভাস। সেইসঙ্গে চমৎকার দৃশ্য, রং মুগ্ধ করবে যেকোনো সিনেমাপ্রেমীকে।

‘রিক্সা গার্ল’ এর ক্রিয়েটিভ প্রডিউসার গাউসুল আলম শাওন। তিনি এই চলচ্চিত্রের কো-এক্সিকিউটিভ প্রডিউসার ও। চ্যানেল আই অনলাইনকে তিনি জানান, ‘রিক্সা গার্ল’-এ তিনজন প্রযোজক। আমেরিকান এরিক জে এডামস ছাড়াও রয়েছেন ফরিদুর রেজা সাগর এবং জিয়াউদ্দিন আদিল। এমন গুণীজনরা যে সিনেমার সাথে জড়িত আছেন, সে সিনেমা আশা করছি সব শ্রেণির দর্শকদের মুগ্ধ করবে।

সিনেমাটি নিয়ে উচ্ছ্বসিত নির্মাতা অমিতাভ রেজাও। আমেরিকান প্রযোজক এরিক জে এডামস ছাড়াও প্রথম সিনেমার মতো নিজের দ্বিতীয় সিনেমাতেও প্রযোজক হিসেবে পেয়েছেন জিয়াউদ্দিন আদিলকে, সেইসঙ্গে যুক্ত হয়েছেন রেকর্ড শতাধিক চলচ্চিত্রের প্রযোজক ফরিদুর রেজা সাগর।

অমিতাভ রেজা পরিচালিত প্রথম ছবি ‘আয়নাবাজি’

শিল্পীমনা নারী নাঈমার গল্প ‘রিক্সা গার্ল’। অন্তত ট্রেলারে তেমনই ইঙ্গিত। সোয়া দুই মিনিটের ট্রেলারে দেখা যায় যে, নাঈমার কাছে ছবি আঁকা ভীষণ পছন্দের। কিন্তু দরিদ্র সংসারে একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি তার বাবা হঠাৎ একদিন অসুস্থ হলে সবকিছু পাল্টে যায়। ছবি এঁকে যেহেতু পয়সা পাওয়া যায় না, তাই বাধ্য হয়ে সেই নাঈমা রাস্তায় রিক্সা নিয়ে বের হন। তাকে সম্মুখিন হতে হয় নানা জটিলতার।

মূল চরিত্র নাঈমার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন নভেরা রহমান। পুরো ট্রেলারজুড়ে উজ্জ্বল উপস্থিতি তার। সেই সঙ্গে তার মায়ের চরিত্রে দেখা যায় মোমেনা চৌধুরী ও বাবার চরিত্রে নরেশ ভুঁইয়াকে। এছাড়া এক ঝলকে স্বভূমিকায় দেখা মেলে চিত্রনায়ক সিয়ামের।

বাংলাদেশ-আমেরিকার যৌথপ্রযোজনায় নির্মিত প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি চলতি বছরের শেষ দিকে মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা আছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তারআগে চলচ্চিত্র উৎসবগুলোতেও দেখানো হতে পারে। এরমধ্যে আগামি জুলাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সবচেয়ে পুরনো চলচ্চিত্র উৎসব ‘ডারবান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’ এর ৪২তম আসরে প্রতিযোগিতা বিভাগে নির্বাচিত হয়েছে।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের লেখিকা মিতালি পারকিনসের কিশোর সাহিত্য ‘রিকশা গার্ল’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে ছবিটি। যার চিত্রনাট্য করেছেন নাসিফ আমিন ও শরবরী যোহরা আহমেদ।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ