শিরোনাম
২০২৩-২৪ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট পাস দিল্লিতে শেখ হাসিনার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর সাক্ষাৎ বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিস শুরু বৃহস্পতিবার সৌদি পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ হজযাত্রী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সব দলকে আমন্ত্রণ জানাবে আওয়ামী লীগ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ৩ অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন ট্রেনের ৩০০ যাত্রী বেনাপোলে দুর্বৃত্তের কোপে গুরুতর আহত রাজস্ব কর্মকর্তা বেনজীরের রিসোর্ট নিয়ন্ত্রণে নিলো প্রশাসন নরেন্দ্র মোদিকে নতুন সরকার গঠনের অনুমতি দিলেন রাষ্ট্রপতি নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী গাজীপুরে বাস-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ দৈনিক আমার সংবাদের এক যুগপূর্তি অনুষ্ঠিত ৫১২ আসনের চূড়ান্ত ফল ঘোষণা এশিয়ায় ইন্টারনেট ব্যবহারে পিছিয়ে বাংলাদেশের নারীরা
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০১:১৬ পূর্বাহ্ন

খুলনা বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ শনাক্ত ৫৯৯ জন

খুলনা ব্যুরো / ১৮৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১১ জুন, ২০২১

খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৭০০ ছাড়িয়েছে। সেইসঙ্গে শনাক্তের সংখ্যাও ৩৮ হাজার ছাড়িয়েছে। 

গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার-শুক্রবার) বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৯৯ জনের, যা সংক্রমণের শুরু থেকে এই বিভাগে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা শুক্রবার (১১ জুন) এ তথ্য জানিয়েছেন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দপ্তর থেকে তথ্যে জানা যায়, ২৪ ঘণ্টায় কুষ্টিয়া জেলায় তিনজন, সাতক্ষীরায় দুইজন ও যশোরে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।

খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গা জেলায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে শুক্রবার (১১ জুন) সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৩৮ হাজার ৬৮৯ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭০১-এ। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩২ হাজার ৭৩৬ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক রাশেদা সুলতানা বলেন, খুলনা বিভাগের ১০ জেলার মধ্যে খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, যশোর ও কুষ্টিয়ায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জেলাভিত্তিক করোনা-সংক্রান্ত তথ্যে উল্লেখ করা হয়, বিভাগে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যার দিক থেকে খুলনা জেলা শীর্ষে রয়েছে। এ পর্যন্ত খুলনায় শনাক্ত হয়েছেন ১১ হাজার ২৫৭ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৯২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৬০৫ জন।

বাগেরহাটে করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৪৬ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৫১৪ জন।
সাতক্ষীরায় শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ২৬৮ জন এবং মারা গেছেন ৫০ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ হাজার ৫৬০ জন।

যশোরে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮ হাজার ২৭ জন। মারা গেছেন ৮৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৬৮০ জন।

নড়াইলে শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ১২ জন। মারা গেছেন ২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৮৭ জন।

মাগুরায় করোনা শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩০৭ জন। মারা গেছেন ২৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২১৫ জন

ঝিনাইদহে শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৩৭ জন। মারা গেছেন ৫৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৭৯২ জন।

কুষ্টিয়ায় করোনা শনাক্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৪৩৮ জন। মারা গেছেন ১২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৭৮০ জন।

চুয়াডাঙ্গায় শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ১৭৫ জন। মারা গেছেন ৬৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৫৯ জন।

শনাক্তের দিক দিয়ে সর্বনিম্নে রয়েছে মেহেরপুর। এখানে শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ১২২ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৮৪ জন।
 

নুরুজ্জামান/বকুল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ