শিরোনাম
২০২৩-২৪ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট পাস দিল্লিতে শেখ হাসিনার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর সাক্ষাৎ বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিস শুরু বৃহস্পতিবার সৌদি পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ হজযাত্রী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সব দলকে আমন্ত্রণ জানাবে আওয়ামী লীগ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ৩ অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন ট্রেনের ৩০০ যাত্রী বেনাপোলে দুর্বৃত্তের কোপে গুরুতর আহত রাজস্ব কর্মকর্তা বেনজীরের রিসোর্ট নিয়ন্ত্রণে নিলো প্রশাসন নরেন্দ্র মোদিকে নতুন সরকার গঠনের অনুমতি দিলেন রাষ্ট্রপতি নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী গাজীপুরে বাস-অটোরিকশা মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ দৈনিক আমার সংবাদের এক যুগপূর্তি অনুষ্ঠিত ৫১২ আসনের চূড়ান্ত ফল ঘোষণা এশিয়ায় ইন্টারনেট ব্যবহারে পিছিয়ে বাংলাদেশের নারীরা
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ন

শাহরাস্তিতে বিকল্প সড়ক না রেখেই ব্রিজ নির্মাণ

রফিকুল ইসলাম পাটোয়ারী, শাহরাস্তি (চাঁদপুর) / ১১৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ৯ জুন, ২০২১

চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার সূচীপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের কেশরাঙ্গা-রাগৈ মৌলভীবাজার গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ কাজ শুরু হলেও জনসাধারণের চলাচলের জন্যে বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না রাখায় এলাকাবাসী দুর্ভোগে পড়েছে।

রাগৈ, লোটরা এলাকাসহ উপজেলা সদরের জনসাধারণ ও সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ এ সড়ক দিয়েই ইউনিয়ন পরিষদ ও ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যেতে হয়।

কালীবাড়ি-লোটরা পানিওয়ালা সড়কের রাগৈ মৌলভীবাজার এলাকায় এ সড়ক অবস্থিত। বেশ কয়েক বছর আগ থেকেই এখানে একটি পাকা ব্রিজ থাকায় জনসাধারণ সেটি দিয়ে যাতায়াত করতো। কিন্তু ব্রিজটি দুর্বল হয়ে পড়ায় তা ভেঙে নতুন ব্রিজ করার উদ্যোগ গ্রহণ করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর।

বন্যা পুনর্বাসন প্রকল্পের অধীনে ৬০ ফুট লম্বা এ ব্রিজের প্রকল্প ব্যয় ধরা হয়েছে ১ কোটি ১২ লাখ টাকা। গত ৭ জানুয়ারি স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম ব্রিজটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

কাজ তদারকি কর্মকর্তা সহকারী প্রকৌশলী মইনুল ইসলাম জানান, উক্ত কাজের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মদিনা এন্টারপ্রাইজ। ব্রিজের দুপাশে সরকারি জায়গা দখল করে রাখার কারণে আমরা বিকল্প সড়কের ব্যবস্থা করতে পারিনি। এ বিষয়ে উচ্ছেদের জন্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, জনগণের চলাচলের জন্যে বাঁশের সাঁকো দেয়া হয়েছে। কিন্ত জাগয়া না থাকায় বিকল্প সড়কের ব্যবস্থা করা যায়নি। তিনি আরও জানান, বাঁশের সাঁকোটিকে আরও মজবুত করে জনসাধারণের চলাচলের উপযোগী করে দেয়া হবে বলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তাকে জানিয়েছে।

শাহরাস্তি উপজেলা প্রকৌশলী রেজওয়ানুর রহমান জানান, উক্ত প্রকল্পে বিকল্প সড়কের বরাদ্দ রাখা হয়নি। তাই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে এ প্রকল্পে বিকল্প সড়কের বরাদ্দ রাখা উচিত ছিলো। আগামি দুদিনের মধ্যে জনসাধারণ চলাচলের জন্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ