শিরোনাম
টি-টোয়েন্টি অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়ে দুই ধাপ এগলো সাকিব সমুদ্র বন্দরসমূহে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত করোনা আক্রান্ত হয়ে একজনের মৃত্যু ৭ দিনে পদ্মা সেতুতে টোল আদায় ২৫ কোটি টাকা সেন্টমার্টিন দ্বীপ নিয়ে গুজবে বিভ্রান্ত হবেন না: আইএসপিআর নেপালকে হারিয়ে সুপার এইটে টাইগাররা ত্যাগের চেতনায় মানুষের কল্যাণে কাজ করুন: প্রধানমন্ত্রী ঈদের দিন ঢাকাসহ পাঁচ বিভাগে বৃষ্টির আভাস বোট ক্লাবের সভাপতির পদ ছাড়লেন বেনজীর জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় ক্যানসার আক্রান্তের পর প্রথমবার জনসম্মুখে ব্রিটিশ রাজবধূ ক্যাথরিন সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের গোলাগুলি, প্রয়োজনে জবাব দেয়া হবে : কাদের পদ্মা সেতুতে ৫ কোটি টাকা টোল আদায় সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ঈদের দিন কেমন থাকবে আবহাওয়া
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন

ইবিতে ভর্তিচ্ছুদের অবস্থান

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৭৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

গুচ্ছ পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আলাদা ইউনিট এবং সিলেকশন পদ্ধতি বাতিলের দাবি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুরা। সোমবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) প্রধান ফটকের সামনে বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থীরা এ অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেন।

দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুশিয়ারি দিয়ে তারা বলেন, ঢাকায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা ইউজিসি বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন। সেখানকার সচিব আমাদের আশ্বস্ত করলেও যথাযথ সাড়া পাইনি। আমাদের দাবির বিষয়টি বিবেচনায় এনে কর্তৃপক্ষ মেনে নেবেন বলে আশা করি। আমরা মাঠে নেমেছি, দাবি আদায় করেই ছাড়ব। এজন্য আমরা আমরণ অনশনসহ যেকোনো পদক্ষেপ গ্রহণে প্রস্তুত।

তারা আরও বলেন, আমরা গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আয়োজনকে সাধুবাদ জানাই। তবে বিভাগ পরিবর্তন বন্ধ এবং সিলেকশন পদ্ধতি হঠকারী সিদ্ধান্ত বলে আমরা মনে করি। সেকেন্ড টাইমাররা দেড় বছর বিভাগ পরিবর্তনের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আসছে। তারা বেশি বিপাকে পড়ছেন।

এখন হুট করে বিজ্ঞানের সাবজেক্টে প্রস্তুতি নেওয়া অসম্ভব। এছাড়া গুচ্ছ পরীক্ষায় সিলেকশন পদ্ধতির জন্য অনেক শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আমরা পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ চাই। পরীক্ষা নিয়ে আমাদের মেধা যাচাই করা হোক। পরীক্ষা দেওয়ার কথা প্রায় ১৮ লাখ, সেখানে চার লাখ সুযোগ পাচ্ছি। এটা সত্যিই হতাশাজনক। যে সময় আমাদের পড়ার টেবিলে থাকার কথা সে সময় আমরা রাস্তায় দাঁড়িয়েছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ