শিরোনাম
জাতীয় ঈদগাহে প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৭টায় ক্যানসার আক্রান্তের পর প্রথমবার জনসম্মুখে ব্রিটিশ রাজবধূ ক্যাথরিন সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের গোলাগুলি, প্রয়োজনে জবাব দেয়া হবে : কাদের পদ্মা সেতুতে ৫ কোটি টাকা টোল আদায় সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ঈদের দিন কেমন থাকবে আবহাওয়া আরাফার দিনের বিশেষ মর্যাদা ও আমল ২০২৩-২৪ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেট পাস দিল্লিতে শেখ হাসিনার সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর সাক্ষাৎ বিআরটিসির ঈদ স্পেশাল সার্ভিস শুরু বৃহস্পতিবার সৌদি পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ হজযাত্রী প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সব দলকে আমন্ত্রণ জানাবে আওয়ামী লীগ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত ৩ অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন ট্রেনের ৩০০ যাত্রী বেনাপোলে দুর্বৃত্তের কোপে গুরুতর আহত রাজস্ব কর্মকর্তা
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১০:০২ অপরাহ্ন

সাংবাদিকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

দর্পণ ডেস্ক / ৩৭৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২১
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান (ফাইল ছবি)

সারাবিশ্বে একটি সম্মানজনক ও আলোচিত পেশা সাংবাদিকতা বলে মন্তব‌্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন,  ‘সাংবাদিকদের ঝুঁকিভাতা ও পেনশনসহ সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে।’ 

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন’ (ক্র্যাব)-এর প্রয়াত সদস্যদের স্মরণে আয়োজিত আলোচনা সভা, মরণোত্তর সম্মাননা ও সন্তানদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সাংবাদিকতার সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি করেছি। সরকার নানাভাবে আপনাদের পাশে আছে। ওয়েজবোর্ড ও কল্যাণ তহবিল নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। এসব বিষয়ে মালিক পক্ষকেও এগিয়ে আসতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন খাতে ঝুঁকিভাতা ও পেনশন চালু আছে। এখানেও তা কিভাবে চালু করা যায়, সে বিষয়ে চেষ্টা করবো। অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে এই বিষয়ে আমি কথা বলবো। ’

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক যুগান্তরের সম্পাদক সাইফুল আলম, কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য পনির উদ্দিন আহমেদ, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মুরসালিন নোমানী, ক্র্যাবের সভাপতি মিজান মালিক প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

One response to “সাংবাদিকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে : পরিকল্পনামন্ত্রী”

  1. সাংবাদিকদের সুযোগ সুযোগ সুবিদার বিশয়ে বিবেচনা করা হচ্ছে, হবে এ ধরনের কথাতো আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই শুনে আসছি কয়একবা বিভিন্ন্য প্রেস ক্লাব ও সাংবাদিক সংগঠন গুলি থেকে ঐ কথা বলে সাংবাদিকদের নাম ধাম ঠিকানাও নিয়েছে। কিন্তু ঐ প্রযন্তই এর পর সুযোগ দেয়া হচ্ছে শতকরা ৯৫% মফসলের সাংবাদিকদের বিনা বেতনে পত্রীকায় কাজ করতে হয়, এব্যাপারে সরকারের কোন ভ্রূক্ষেপ নাই। এমন কি এই করোনার মত দুঃর্যোগের সময়ও মফস্বলের সাংবাদিকরা পায়নাই একট পয়শার সাহায্যো। অথচ প্রতিদিন শুনছি সরকার সাংবাদিকদের জন্য কিছু করার কথা নাকি ভাবছে। তবে সাংবাদিকদের জন্য সরকারের ভাবনা চিন্তার বহিঃ প্রকাশ যেটা আমরা দেখতে পাচ্ছি, সেটা কিন্তু সাংবাদিকের পরিবারের ভরন পোষনের উন্নয়নের জন্য কোন আলামত আমরা দেখতে পাইনী, তবে দেখেছি দেখছি সাংবাদিকদের কথায় কথায় একেবারে জেল খানায় ঢ়ুকিয়ে সরকারী খাবার নিত্য নতুন আইন জারি এবং তা তড়িঘড়িকরে বাস্তবয়ন করার ব্যাবস্থাটা সরকার খুব তড়িৎ গতিতে করছেন। তাই এখন সাংবাদিকদের প্রতি সরকার দৃষ্টিদান করবেন শুনলে ভয় হয় মনে হয় আবার বোদহয় কোন নির্যাতন মুলক আইন জারি করতে চলেছে সরকার সাংবাদিক সমাজের বিরুদ্ধে। এখন দেশে যে কটি সেক্টার অবহেলিত মনবেতর জীবন যাপন করছে তাদের মাঝে সবচেয়ে বেশী নিপিড়িত নির্যাতিত অবহেলিত মানবেতর জীবন যাপন কারী সমাজটি হোক মফস্বল সাংবাদিক সমাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ