শিরোনাম
বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনালের উদ্বোধন ৭ অক্টোবর হোয়াটসঅ্যাপে চ্যানেল খুলে আয়ের সুযোগ গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের সাথে কেএমবি মানি ট্রান্সফারের চুক্তি ডিজিটাল সংযুক্তি দেশের টেকসই উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে: স্পিকার পদার্থে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী নারায়ণগঞ্জে ৫ দিনব্যাপী বহুমুখী পাটপণ্য মেলা শুরু বাংলাদেশিদের ভিসা ছাড়াই ওমরাহ করার সুযোগ সঙ্গী পরকীয়ায় জড়িয়েছে কিনা বুঝে নিন লক্ষণে মোংলায় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের পণ্য নিয়ে রুশ জাহাজ বিশ্বকাপের ১০ অধিনায়কের ফ্যাক্টফাইল দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীদের প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান রাষ্ট্রপতির গাজীপুরে চেকপোস্ট বসিয়ে র‌্যাবের নিরাপত্তা জোরদার স্পেনে নাইট ক্লাবে আগুন, নিহত অন্তত ৭ আর্থসামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ ঈর্ষণীয় সাফল্য অর্জন করেছে নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে চক্ষু চিকিৎসা শিবির উদ্বোধন করেন এসপি সাইফুল ইসলাম
বুধবার, ০৪ অক্টোবর ২০২৩, ১১:৩৮ পূর্বাহ্ন

আখচাষি ও চিনিকলের শ্রমিক-কর্মচারীরা চরম বিপাকে: ফখরুল

দর্পণ রিপোর্ট / ১৪৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২০
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। (ফাইল-ছবি)

দেশের ছয়টি চিনিকল বন্ধ করায় এবং তিনটি চিনিকল বন্ধের নোটিশ দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘চিনিকল বন্ধের আকস্মিক সিদ্ধান্তে লাখ লাখ আখচাষি এবং হাজার হাজার শ্রমিক-কর্মচারী চরম বিপাকে পড়েছেন। সৃষ্টি হয়েছে হতাশা এবং অনিশ্চয়তা। সরকারের এই অমানবিক ও অদূরদর্শী সিদ্ধান্তে একদিকে আখচাষিসহ চিনিকলে খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে হাহাকার সৃষ্টি হয়েছে, অন্যদিকে বাজারে চিনির সংকটও সৃষ্টি হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘ষড়যন্ত্রমূলকভাবে চিনিকলগুলোকে অলাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে সরকার সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা করেছে বলে মনে হচ্ছে। চিনিকলগুলোর পরিচালনা পরিষদে ক্ষমতাসীন দলের এমপি ও নেতাকর্মীদের যুক্ত করে তাদের মাধ্যমে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে লুটপাট ও দুর্নীতি করা হচ্ছে। ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা এসব চিনিকলের চিনি, চিটা গুড় এবং যন্ত্রপাতি বিক্রির টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ করে কম দামে নিজেরাই কিনে নিচ্ছে। চিনিকলগুলোতে ইচ্ছেমতো দলীয় লোকদের মাস্টাররোলে চাকরি দেওয়ার নামে কাজ না করিয়ে বেতন-ভাতা দিচ্ছে। ফলে ব্যয় বাড়ছে। অন্যদিকে চিনির কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে ভারত থেকে নিম্নমানের চিনি আমদানি করে বেশি দামে বিক্রির সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে। এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে জনগণ। চাষিরা আখ উৎপাদনে নিরুৎসাহিত হচ্ছে।’

বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘সরকার বিরোধী দল ও মতের মানুষদের নিশ্চিহ্ন করে দীর্ঘকাল ক্ষমতা কুক্ষিগত রাখার চিন্তায় বিভোর থাকায় জনগণের ভালো-মন্দ দেখার সময় তাদের নেই। কিছুদিন আগেও সরকার ২৫টি পাটকল আকস্মিকভাবে বন্ধ করায় হাজার হাজার শ্রমিক-কর্মচারী বেকার হয়েছে। এ সরকার ক্ষমতায় আসার আগে ঘরে ঘরে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও তারা ঘরে ঘরে বেকার তৈরি করছে।’

চিনিকল বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

  • তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি.কম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ